আমি মেসির দুঃখটা বুঝতে পারি : সুয়ারেজ

ছায়াপথ ডেস্ক : আর্জেন্টাইন জাদুকর লিওনেল মেসি ও উরুগুইয়ান সুপারস্টার লুইস সুয়ারেজের বন্ধুত্বের গল্পটা সবারই জানা। মাঠে তাদের যুগলবন্দি স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনাকে জিতিয়েছে অসংখ্য ম্যাচ, বারবার একসঙ্গে ট্রফি হাতে উল্লাসে মেতেছেন দুজন।

মাঠের বাইরেও এই দুজনের সম্পর্কটা অন্য পর্যায়ের। তাই তো একে-অন্যের দুঃখটা বুঝতে পারেন খুব সহজেই। সম্প্রতি বার্সেলোনা ছেড়ে স্পেনের আরেক ক্লাব অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে পাড়ি জমিয়েছেন সুয়ারেজ। একরকম বাধ্য হয়েই ক্লাব বদলাতে হয় এই উরুগুইয়ান ফুটবলারকে।

এই মৌসুমের দলবদলে বার্সেলোনার সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্কের ইতি টানতে চেয়েছিলেন মেসিও। যদিও শেষপর্যন্ত আইনি মারপ্যাঁচের হিসেব সামনে চলে আসায় ক্লাব ছাড়তে পারেননি তিনি। তবে বন্ধু সুয়ারেজের বিদায় নিয়ে নিজের ক্ষোভ ও অসন্তুষ্টি লুকিয়ে রাখেননি মেসি।

সুয়ারেজের ক্লাব ছাড়ার খবর নিশ্চিত হওয়ার পর এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে মেসি লিখেছিলেন, ‘তুমি দারুণ একটা বিদায়ের যোগ্য। ক্লাবের ইতিহাসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্যদের একজন। যে দলের হয়ে ও ব্যক্তিগতভাবে দারুণ সব অর্জন নিজের করেছে। তুমি এভাবে বিদায় নিতে পার না, যেভাবে তারা দিচ্ছে। কিন্তু এখন আর আমি কোনকিছুতেই অবাক হই না।’

মেসির এই বক্তব্যে তখন আবেগঘন জবাব দিয়েছিলেন সুয়ারেজ। আবারও সে প্রসঙ্গ উঠতে সুয়ারেজ জানালেন মেসির সঙ্গে সম্পর্কের গভীরতার কথা। শুক্রবার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে চিলিকে ২-১ গোলে হারায় উরুগুয়ে। ম্যাচশেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সুয়ারেজ বলেন, ‘আমি মেসিকে নিয়ে অবাক হইনি। কারণ আমি তাকে খুব ভালো করে চিনি। আমি তার দুঃখটা বুঝতে পারি।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘সে বুঝতে পেরেছে আমাকে ফর্মের কারণে ক্লাব থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এটা অন্যভাবে করা যেত। সেখানে দীর্ঘ ছয় বছর কাটিয়েছি, এটাও তাকে কষ্ট দিয়েছে। মেসি আমার বন্ধু, সে জানে আমরা সবকিছু কীভাবে সহ্য করেছি।’

নতুন ক্লাব অ্যাটলেটিকোর হয়ে শুরুটা দুর্দান্ত করেছেন সুয়ারেজ। নিজের অভিষেক ম্যাচে মাত্র বিশ মিনিট খেলেই করেছেন জোড়া গোল ও এক এসিস্ট। নতুন ক্লাবে বেশ ভালো আছেন জানিয়েছেন তিনি, ‘অবশ্যই এখানে (অ্যাটলেটিকো) আমাকে কিছু জিনিসের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে। তবে এখানে আমি খুব আনন্দে আছি।’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।