ছবি পোস্ট করেই ট্রোলড নুসরাত!

ছায়াপথ ডেস্ক:  নুসরাত জাহানকে  নিয়ে চর্চার শেষ নেই। সোশ্যাল মিডিয়া হোক বা মিডিয়া- সর্বত্রই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এই টলি নায়িকা। মা হওয়ার পর নুসরাতের নির্মেদ শরীর সবাইকে অবাক করেছে। শরীরে নেই বেবিফ্যাট, চাবুক ফিগারে সকলকে ক্নিনবোল্ড করেছেন তারকা সাংসদ, তবে বারেবারে তাঁকে পড়তে হচ্ছে কটাক্ষের মুখেও।

শনিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের একবার উষ্ণতার পারদ চড়ালেন ঈশানের মা। পরনে কমলা রঙা অন্তর্বাস, নীল-সাদার মিশেলে সুতির পালাজো এবং একই কাপড়ের লম্বা সার্গ। সঙ্গে খোলা চুল আর কড়ির কানের দুল। কমলা ব্রা-এর ফাঁক দিয়ে উঁকি দিচ্ছে তাঁর বক্ষবিভাজিকা। ছবিতে উপচে পড়ছে ভরা যৌবন। ছবির ক্যাপশনে নুসরাত লিখেছেন, ‘সামার ভাইবস’।নুসরাতের এই পোস্টে ঝড়ের গতিতে ধেয়ে আসছে কটাক্ষ। অনেকেই হয়রান একজন জন প্রতিনিধির এ হেন পোশাক দেখে। নীতি পুলিশদের অনেকেই লিখেছেন, ‘একজন সাংসদ হয়ে এই ধরণের পোশাক অত্যন্ত কুরুচিকর’। কেউ কেউ ধর্ম টেনে আক্রমণ করেছেন নুসরাতকে।

‘মুসলিম নামের কলঙ্ক নুসরাত’, একথা লিখতে দেখা গেল নেটিজেনদের। কেউ আবার লিখেছেন বসিরহাটের যে সকল মানুষ ভোট দিয়ে নুসরাতকে জিতিয়েছে তাঁদের প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়া উচিত।

দিন কয়েক আগেই ইদের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে বুকের ট্যাটু ফ্লন্ট করে কটাক্ষের মুখে পড়েছিলেন নুসরাত, সেই নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। ক’দিন যেতে না যেতে ফের নেটিজেনদের নিশানায় নুসরাত।নুসরাত।

 

 

পোশাক নিয়ে হামেশাই বিতর্কের মুখে পড়েন নুসরাত, দিন কয়েক আগেও পাটায়ার বিচে বিকিনি পরে ট্রোলড হয়েছিলেন বসিরহাটে সাংসদ। যদিও ট্রোলারদের পাত্তা দিতে না-রাজ যশ ঘরণী।

 

 

বিদ্রুপ, কটাক্ষ নিয়ে কোনওদিনই খুব একটা মাথা ঘামান না নুসরাত। নিজের শর্তে বাঁচতে পছন্দ করেন নুসরাত. তিনি হামেশা বলেন, ‘কুছো তো লোগ কয়েঙ্গে…’।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।