নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে কোদালের কোপে যুবকে হত্যার চেষ্টা

ছায়াপথ ডেস্ক : কোদালের কোপ থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন আব্দুর রহিম শাহ (৩৩)। আজ শনিবার সকালে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় কেল্লাবাড়ী বাজারে অসহায়  বিধবার পৈত্তিক সম্পত্তি জবর দখল করার সময় প্রতিপক্ষের  এ পৈশাচিক আক্রমনের স্বীকার হয় ওই যুবক। ঘটনা স্থলে পুলিশ গিয়ে দুই পক্ষকে নিবৃত্ত করে।

সরেজমিনে গিয়ে ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, চাঁদথানা শাহপাড়া গ্রামের মরহুম আবু বক্কর সিদ্দিকের  স্ত্রী লিপি বেওয়া তার স্বামীর রেখে যাওয়া খতিয়ান নম্বর  ১৩৫, হাল দাগ নম্বর ১৮৫ ও১৮৩ , সম্পত্তির পরিমান ১৯শতাংশ। ওই সম্পত্তিতে  বৃদ্ধা বিধবা বসত বাড়ী করে   ও একটি রাইচ মিল  দিয়ে সন্তান সন্ততিদের  লালন পালন করে আসছে। কিন্তু প্রতিপক্ষ বেলাল শাহ ,বকুল শাহ, ও বাবুল শাহসহ আরো অনেকে শনিবার সকালে বিধবার ওই সম্পত্তি দলবল নিয়ে জবর দখল করতে এসে মিলের ব্যারা ভাংচুর করে।এ সময় রহিম শাহ বাধা দিতে গেলে স্বপন শাহ কোদাল দিয়ে রহিমকে কোপ দিলে এলাকার কয়েকজন ব্যক্তি  তাকে থেকে রক্ষা করে।

রহিম শাহ জানায় , বিধবার পুত্র সন্তান না থাকায় দুবৃত্তরা বহুদিন থেকে জমি জবর দখলের পায়তারা করে  আসছে।আজকে তারা এসে রাইস মিলের গ্ডোাউনে ব্যারা ভাংচুর করলে এতে আমি বাধা দেই।এ সময় স্বপন শাহ কোদাল দিয়ে আমাকে কোপাতে উদ্ধত হয়।এলাকাবাসীর হস্তক্ষেপে আমি প্রাণে বেঁচে যাই।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল বলেন- ঘটানা স্থলে পুলিশ পাঠিয়ে ছিলাম।পুলিশ দুই পক্ষকে শান্ত থাকতে বলে এসেছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।