স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে ১শ ১১জনকে অর্থদন্ড

ছায়াপথ ডেস্ক : খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার দ্বিতীয় দিনে মাস্ক না পরে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে জেলাতে আজ বুধবার(১৮ই নভেম্বর) আরও ১শ ৯৩জনকে অর্থদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যামা আদালত। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২৫ হাজার ৩শ ২০ টাকা আদায় করা হয়েছে।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসনের নির্বার্হী ম্যাজিস্ট্রেট মো: সাজ্জাদ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযান এখনো চলছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের তথ্যমতে, আজ বুধবার সকাল থেকে অভিযান চালিয়ে মাস্ক না পরার অপরাধে খাগড়াছড়ি জেলা সদরে ৪০জন, পানছড়িতে ১৫জন, মানিকছড়িতে ২২জন, মাটিরাঙায় ৭জন, রামগড়ে ২০জন, গুইমারায় ১৬জন, লক্ষ্মীছড়িতে ১১জন, মহালছড়িতে ১৫জন ও দীঘিনালায় ২৭জনকে অর্থদন্ড দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে গত তিন দিনে ৪১১জন অর্থদন্ড  দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস জানান, করোনায় স্বাস্থ্য লঙ্ঘন করলে কাউকে ছাড় দেবে না প্রশাসন। আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। প্রয়োজনে অর্থদন্ডের পাশাপাশি জেল-জড়িমানা দেওয়া হবে। তিনি মাস্ক ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের না হতে এবং সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান।

দীঘিনালা উপজেলা: জেলার দীঘিনালা উপজেলায় মাস্ক পড়ে বের না হওয়ায় ২৭জনকে ২হাজার ৯শত টাকা অর্থদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার(১৮ই নভেম্বর) দীঘিনালা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ উল্লাহ। এসময় মাস্ক না পড়ায় ২৭জনকে ২হাজার ৯শত টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। এছাড়া তাদের প্রত্যেককে কেএন নাইন্টিফাইভ মাক্স বিরতণ করেন ইউএনও।

দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোবাইল কোর্ট পরিচালনার পাশাপাশি মাস্ক পড়ে বাইরে বের হওয়ার ব্যপারে সচেতন করেন।

মানিকছড়ি উপজেলা: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় মানিকছড়ি উপজেলা প্রশাসন গত দুই দিনে হাট-বাজারে জনসমাগমে মাস্ক এর ব্যবহার না থাকায় ৪৪জনকে ৭হাজার ৪শত টাকা জরিমানা করেছে প্রশাসন।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, করোনার দ্বিতীয় ওয়েব রোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে মানিকছড়ি উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছে উপজেলা প্রশাসন। গত ১৭ ও ১৮ নভেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, তামান্না মাহমুদ এবং সহকারি কমিশনার(ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, রিফাত আসমা কর্তৃক মানিকছড়ি উপজেলার আমতল, মানিকছড়ি বাজার, মহামুনি, তিনটহ্যরীসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালিত হয়।

এ অভিযানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী নির্দেশনা অমান্য করে মাস্ক পরিধান না করায় দুই দিনের পরিচালিত মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৪৪জনকে ৭হাজার ৪শত টাকা জরিমানা করা হয়। জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার তামান্না মাহমুদ।

লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা: খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে ১৭ই নভেম্বর মঙ্গলবার থেকে খাগড়াছড়ি জেলা ব্যাপি মাস্ক বিহীন ব্যক্তির বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দেয়ার পর লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় অভিযান পরিচালনা করেন নবাগত সহকারি কমিশনার(ভূমি) মো: জাকির হোসেন। ১৭ই নভেম্বর মঙ্গলবার সকালে উপজেলা সদর ও বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করে ১১জনকে প্রাথমিক সতর্কতা হিসেবে জরিমানা করে ছেড়ে দেন। এসময় ৩হাজার ৮০০টাকা আদায় করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী ম্যাজিষ্ট্রড মো: জাকির হোসেন বলেন, করোনা মহামারি থেকে রক্ষা পেতে হলে অবশ্যই সচেতন হতে হবে। মাস্ক ছাড়া কেউ বের হলেই জরিমানা করা হবে। আইন অমান্যকারীদেও বিরুদ্ধে প্রয়োজনে আরো কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করা হবে।

উল্লেখ্য ১৬ই নভেম্বর রাতে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসকের ফেইসবুক আইডিতে বলা হয় ‘‘আগামীকাল থেকে জেলায় মাস্ক বিহীন ব্যক্তির বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট বিশেষ অভিযান শুরু করবে। দয়া করে মাস্ক পরিধান করুন”।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।